আপনার ল্যাপটপ কি অনেক হট? তাহলে এই টিপসগুলো আপনার জন্য! ২৪টেকি

আপনার ল্যাপটপ কি অনেক হট? তাহলে এই টিপসগুলো আপনার জন্য! ২৪টেকি

Laptop অনেক শখের জিনিস আমাদের কাছে। আর এই শখের ল্যাপটপের “হিট মেশিন” হয়ে ওঠা নিয়ে যেসব ব্যবহারকারী অতিমাত্রায় চিন্তিত এবং শঙ্কিত, তাদের জন্য ল্যাপটপ ঠান্ডা রাখার কিছু সহজ উপায় নিয়ে আজ হাজির হলাম। তবে ল্যাপটপ যদি দীর্ঘ সময়ের জন্য গরম থাকে, তাহলে ল্যাপ্টপের কর্মক্ষমতা কমে যাবে অথবা গুরুতর ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। চলুন দেখি কী কী উপায়ে ঠান্ডা(cool) রাখা যায় ল্যাপটপ…

১। একটি কঠিন ও সমতল স্থানে ল্যাপটপ স্থাপন করুন

অধিকাংশ ল্যাপটপের “আগ্নেয়গিরি” হয়ে ওঠার পেছনে মূল কারণ ল্যাপটপ অসমতল কোন জায়গায় (যেমন: বিছানা বা বালিশের উপর) রেখে ব্যবহার করা। এর ফলে ল্যাপটপের নিচে বাতাস চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে যায় এবং ল্যাপটপের অভ্যন্তরে তৈরি হওয়া তাপ বের হওয়ার সুযোগ পায় না। ফলে ল্যাপটপটি গরম হয়ে যায়। সুতরাং ল্যাপটপকে ঠান্ডা রাখতে সর্বপ্রথম কাজ হলো কোন সমতল স্থানে রেখে ব্যাবহার করা। আর বালিশ বা বিছানার উপর রাখতে হলে ল্যাপটপের দুই পাশে উচু কিছু দিয়ে বায়ু চলাচলের জায়গাটা উন্মুক্ত রেখে তারপর ব্যাবহার করতে পারেন।

২। বিরত থাকুন অনবরত চার্জ দেওয়া থেকে

অনেকেই ফুল চার্জ হওয়ার পরেও ল্যাপ্টপকে চার্জে দিয়ে রাখে। এই জিনিসটা করা একেবারেই উচিত নয়। ফুল চার্জড যখনি হবে তখনি উচিত চার্জিং ক্যাবলটি খুলে ফেলা। সব সময় চার্জিং কেবল লাগিয়ে রাখলে কার্যত ব্যাটারির আয়ু তো বাড়েই না বরং ব্যাটারি ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।



৩। বন্ধ রাখুন অপ্রয়োজনীয় সফটওয়্যার

মাঝে মাঝেই আমরা কাজ করার সময় বিভিন্ন ধরনের সফটওয়্যার কাজে না লাগলেও চালু অবস্থায় মিনিমাইজ করে রাখি। ফলে অ্যাপটি ব্যাকগ্রাউন্ডে সচল থাকে এবং সিপিইউ এর উপর প্রভাব ফেলে। প্রসেসর যখন একসাথে অনেকগুলো কাজ করে তখন স্বাভাবিকভাবেই এটি অনেক বেশি গরম হবে। এ কারণে সবসময়ই উচিত ল্যাপটপে যেকোন ধরনের কাজ করার সময় অপ্রয়োজনীয় অ্যাপগুলোকে মিনিমাইজ না করে, বন্ধ রাখা।

৪। ধুলা-ময়লা মুক্ত রাখুন

ধুলা ময়লার কারনে ল্যাপটপ অনেক গরম হয়। তাই চেষ্টা করুন মাসে একবার ল্যাপটপ খুলে ব্লোয়ার দিয়ে ময়লা পরিষ্কার করার। তাহলে দেখবেন গরম কম হবে এবং পারফর্মেন্স যথেষ্ট ভালো হবে।

৫। পাওয়ার এডজাস্ট করুন

ল্যাপ্টপের পাওয়ারে গিয়ে ব্যালেন্সড প্লানটি সিলেক্ট করুন এবং অন্যান্য সেটিং এর সাথে সমন্বয় করুন। সিপিইউ এর টেম্পারেচার মনিটর করুন এবং ফ্যান এর স্পিড চেক করুন। ল্যাপ্টপকে রেস্ট দিন যদি যতটা সম্ভব।

৬। নিয়ন্ত্রণে রাখুন ব্রাউজারের ট্যাব সংখ্যা

অধিকাংশ ক্ষেত্রেই আমরা স্লো ইন্টারনেট স্পিড বা বিভিন্ন কারণে একসাথে ইন্টারনেট ব্রাউজারের অনেকগুলো ট্যাব ওপেন করে রাখি। এটা নিয়ে কারো কারো মধ্যে এরকম ভুল ধারনাও আছে যে যে ট্যাবটিতে কাজ করছি শুধুমাত্র সেটিই সচল অবস্থায় আছে। সত্য হলো ব্রাউজারে অনেক গুলো ট্যাব একসাথে ওপেন করলে প্রত্যেকটি ট্যাবই চালু থাকে এবং সিপিইউ এর উপর প্রভাব ফেলে। অপ্রয়োজনীয়ভাবে একসাথে অনেক গুলো ট্যাব খোলা রাখলে সিপিইউ এর উপর অতিরিক্ত চাপ পড়ে অতিরিক্ত গরম হয়ে যেতে পারে ল্যাপটপটি।

৭। কুলিং প্যাড ব্যবহার করুন

অনেকের কাছেই ল্যাপটপে কাজ করার সময় কুলিং প্যাড ব্যাবহার করাটা বিরক্তিকর একটা ব্যাপার। আসলেই এটা একটা অতিরিক্ত ঝামেলা ! তবে ল্যাপটপ দীর্ঘসময় ব্যাবহারের ক্ষেত্রে কুলিং প্যাড ব্যবহারে অভ্যস্ত হওয়াটা ল্যাপটপের জন্য বেশ কাজের। কুলিং প্যাড ল্যাপটপের মধ্যে থেকে গরম বাতাস বাইরে বের করে দেয় এবং ঠান্ডা বাতাস ভিতরে যাওয়ার ব্যবস্থা করে দেয়, ফলে ল্যাপটপ ঠান্ডা থাকে। এ কারণে ল্যাপটপের সুস্থতার কথা চিন্তা করে হলেও আমাদের উচিত কুলিং প্যাড ব্যবহারে অভ্যস্ত হওয়া! কারন একটা জিনিস মাথায় রাখবেন যে, ল্যাপটপে বাতাস চলাচলের জায়গা ডেস্কটপ থেকে অনেক সংকীর্ণ, যার ফলে গরম বাতাস বের হওয়া বা ঠান্ডা বাতাস প্রবেশ করানো একটু কঠিন। তাই কুলিং প্যাড এই কাজটি সহজ করে দেয়।

উপরের পদক্ষেপগুলি গ্রহণ করে আপনার ল্যাপটপকে ৮৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে ৪৫/৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নামিয়ে আনতে পারেন। যত্নের সাথে এইবিষয় গুলো খেয়াল করলে আশা করি ল্যাপটপে গরম হওয়ার ঝামেলা আর থাকবে না। ভালো লাগলে কমেন্টে জানাবেন, সাবস্ক্রাইব, শেয়ার করবেন আর ফেসবুকপেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকবেন।

1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (No Ratings Yet)
Loading...
Spread the love

Related posts

Leave a Comment